আব্বা-আম্মা বলছিলেন, বউকে বেশি পড়াইলে উড়াল দিয়ে চলে যাবে: রাকিব

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি গায়ে হলুদ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি হয়েছে বিবাহোত্তর সংবর্ধ’নাও। এরই মধ্যে অ’ভিযোগ উঠেছে আগের স্বা’মীকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন স্ত্রী’ তামিমা তাম্মি।

Advertisements

আজ শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে রাইসা ইস’লাম বাবুনি নামক এক ফেসবুক ব্যবহারকারীর একটি পোস্ট ভাই’রাল হয়েছে। সেই পোস্টে তামিমা’র স্বা’মী রাকিবের পক্ষে দাবি করা হয়েছে, এখনও তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্প’র্ক রয়েছে। তাদের ঘরে রয়েছে ৮ বছর ব’য়সী একটি মে’য়ে স’ন্তানও।

রাকিব জানান, প্রে’ম করে বিয়ে করেছিলাম। সে আসলে আমাকে চা’প দিয়েই বিয়ে করেছিল। বলেছিল, তুমি বিয়ে কর নাহলে আমা’র আম্মা বিয়ে দিয়ে দিচ্ছে। প্রথমে আম’রা টাঙ্গাইলে কোর্ট ম্যারেজ করেছিলাম। পরে আম’রা বিয়ে করি বরিশালে। আমা’র বউকেই দুইবার বিয়ে করেছি। এরপর সংসার শুরু করি।

সংসার শুরুর পর যখন সে এএসসি পাস করে আমা’র কাছে আসল, দেখলাম তার রেজাল্ট ভালো।তখন আব্বা-আম্মা বলছিল, বউকে বেশি পড়ানোর দরকার নাই। বেশি পড়াইলে বউ উড়াল দিয়ে চলে যাবে। আমি আব্বু-আম্মুর স’ঙ্গে ঝ’গড়া করলাম। শেষ পর্যন্ত তাদের কথাই সত্য হলো।

কন্যার জ’ন্মের ঘ’টনা উল্লেখ করে রাকিব বলেন, ‘আব্বা আমাকে বলছিল, তুমি যদি তাকে পড়াতে চাও তাহলে ঢাকা নিয়ে যাও। আমি তাকে ঢাকায় নিয়ে আসলাম। একটা শো রুমে ম্যানেজারের চাকরি নিলাম। সাবলেট বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতে লাগ’লাম। তাকে কুমুদিনীতে ভর্তি করলাম। সপ্তাহে একদিন ছুটি পেতাম। তাকে নিয়ে যেতাম কিংবা নিয়ে আসতাম।

Related posts

Leave a Comment